Dhaka, Friday, 29 May 2020

গুজব ছড়িয়ে আদার ব্যাপারীরা জাহাজের খবর নিচ্ছে যে!

2020-04-27 19:17:03
গুজব ছড়িয়ে আদার ব্যাপারীরা জাহাজের খবর নিচ্ছে যে!

সুখবর প্রতিবেদক: ছোট বেলা থেকেই প্রবাদ শুনে আসছি “আদার ব্যাপারী হয়ে জাহাজের খবর”। বিষয়টি এতোদিন রম্য ও ব্যাঙ্গাত্মক অর্থে ব্যবহৃত হলেও এবার সত্যিই আদার ব্যাপারীরা জাহাজের খবর নিচ্ছে। গুজব রটিয়ে চার-পাঁচ গুণ বেশি দামে আদা বিক্রি করে অল্প কয়েকদিনেই হাতিয়ে নিয়েছে কয়েকশ কোটি টাকা।

কোনো রকম সংকট না থাকা সত্ত্বেও ‘করোনাভাইরাসের প্রতিরোধক’ গুজব রটিয়ে গত চার মাসে কয়েকশ কোটি হাতিয়ে নিয়েছে আদা ব্যবসায়ী এবং আমদানিকারকরা। এর মধ্যে চট্টগ্রামের ৩২ আমদানিকারক রয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তারা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ছেড়ে পালিয়ে গেলেও ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে দুই গুদাম মালিককে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে জেলা প্রশাসনের কাছে পাঠানো তথ্য অনুযায়ী, চট্টগ্রামের ৩২ জন আমদানিকারক গত চার মাসে আদা আমদানি করেছেন প্রায় ৩ হাজার ২শ মেট্রিক টন। যার আমদানি মূল্য ২৫ কোটি টাকা। সে অনুযায়ী, প্রতি কেজি আদার দর ছিল ৮০ থেকে ৯০ টাকা। কিন্তু করোনাভাইরাসের অন্যতম প্রতিষেধক গুজব রটিয়ে আদা বিক্রি হয়েছে ৩৫০ থেকে ৩৬০ টাকা দরে।

নিবাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলাম বলেন, আড়তদার ও ব্রোকার যারা আছেন তারা কয়েকশ কোটি টাকার একটি পেপারলেস ব্ল্যাক মার্কেট তৈরি করে সব হাতিয়ে নিয়েছে।

আমদানিকারক এবং গুদাম মালিকরা পালিয়ে যাওয়ায় গত ২ দিন ধরে চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে অভিযান চালিয়ে আসছে সেনাবাহিনী এবং ভ্রাম্যমাণ আদালত। দিনভর অভিযান চালিয়ে পাওয়া গেলো ২টি গুদাম। গুদাম মালিকদের ২ লাখ টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সেনাবাহিনীর টহল টিম ক্যাপ্টেন কাফিউন নাহার বলেন, অন্য ব্যবসায়ীরাও আদা গুদামজাত করছে। এরকম দুটি দোকানেই জরিমানা করা হয়েছে।

অবশ্য জব্দকৃত আদাগুলো প্রতিকেজি ১২০ টাকা দরে বিক্রি করা হয়।





অপরাধ ও দুর্নীতি সর্বশেষ খবর

অপরাধ ও দুর্নীতি এর সকল খবর