Dhaka, Tuesday, 02 June 2020

আজ বিশ্ব ‘মা’ দিবস: সকল মায়ের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা

2020-05-10 11:34:22
আজ বিশ্ব ‘মা’ দিবস: সকল মায়ের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা

সুখবর প্রতিবেদক: “মা কথাটি ছোট্ট অতি, কিন্তু জেনো ভাই, ইহার চেয়ে নামটি মধুর তিন ভুবনে নাই।” -হ্যাঁ, সত্যিই তাই। মাত্র একটি অক্ষরের শব্দ ‘মা’। কিন্তু পৃথিবীর সবচেয়ে মধুর শব্দ এটি। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শব্দ এটি। অর্থে অনবদ্য। শ্রুতিতেও মধুময়। মা ডাক শুনলে চোখের সামনে ভেসে ওঠে মায়াবী সুন্দর এক মুখ। যে মুখে লেগে থাকে স্নেহ, মমতা আর ভালোবাসা।

মায়ের বিশালত্ব কোনো কিছু দিয়েই পুরোপুরি তুলে ধরা সম্ভব নয়। তবে এই ছোট্ট শব্দটির মধ্যে যে আবেগ আর আত্মার সম্পর্ক লুকিয়ে আছে, খ্যাতিমান কবি কাজী কাদের নেওয়াজ তার ‘মা’কবিতায় কিছুটা হলেও তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছেন।

একজন মানুষের পৃথিবীতে যে অস্তিত্ব তার পেছনে আছে একজন মায়ের দীর্ঘ নয় মাসের এক কষ্টসহিষ্ণু কাল। তাই মায়ের অবস্থান সবার উপরে। তার চেয়ে আপন আর কেউ নেই। সন্তানের কাছে তিনিই জগতের সর্বশ্রেষ্ঠা।

‘মা’শব্দের মধ্যেই পৃথিবীর সব ভালোবাসা, আবেগের সম্মিলন। সন্তানের কাছে সবচেয়ে আপন, সবচেয়ে প্রিয় তার ‘মা’। পৃথিবীর সব মানুষের মনে রয়েছে মায়ের প্রতি অপরিসীম শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা। কেননা সম্পর্কের বেড়াজাল ছিন্ন করে সবাই দূরে সরে যেতে পারে। চলে যেতে পারে প্রেমাবেগের বন্ধনের প্রিয়সীও। কিন্তু ‘মা’র স্নেহ-ভালোবাসার বন্ধন কখনোই ছিন্ন হওয়ার নয়।

‘মা’এমন একজন, যিঁনি সারাজীবন সন্তানকে বুকের মধ্যে আগলে রাখেন।

আজ বিশ্ব ‘মা’দিবস। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এরই মধ্যে মাকে ভালোবাসা জানিয়েছেন বহু মানুষ। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ভিন্ন ভিন্ন তারিখে দিনটি পালন করা হয়। নরওয়েতে- মার্চের চতুর্থ রোববার, আয়ারল্যান্ড, নাইজেরিয়া ও যুক্তরাজ্যে মা দিবস পালিত হয় ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় রোববার। তবে বাংলাদেশে মা দিবস নির্ধারণ করা হয়েছে মে মাসের দ্বিতীয় রোববার। বিশ্বের অনেক দেশে কেক কেটে মা দিবস উদযাপন করা হয়।

যদিও মায়ের প্রতি সম্মান জানিয়ে বর্তমানে সারা বিশ্বে ঘটা করে পালন করা হয় ‘মাদার্স ডে’বা ‘মা দিবস’। তবে অনেক আগে এটি ছিল নিছক একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান। আধুনিক কালে আমেরিকায় প্রথম ধর্মনিরপেক্ষভাবে দিনটি পালন শুরু হয়।

আমেরিকার ছোট এক শহরে এর সূত্রপাত হলেও সেখান থেকে ধারণাটি জনপ্রিয় হয়ে সারা আমেরিকায় ছড়িয়ে পড়ে। এর পর ছড়িয়ে পড়ে সারা বিশ্বে।

আধুনিক কালে আমেরিকা থেকে আইডিয়াটা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়লেও এর উৎস প্রাচীন মিসর। সেখানে এর চল শুরু হয়েছিল ধর্মীয় আচারের অংশ হিসেবে। যদিও এ বিষয়ে মতান্তর রয়েছে।

আবার মা দিবস বা মাতৃ দিবস হলো একটি সম্মান প্রদর্শনজনক অনুষ্ঠান। যা মায়ের সন্মানে এবং সমাজে মায়েদের প্রভাবের জন্য উদযাপন করা হয়। এটি বাবা দিবসের অনুপূরক, যা পিতার সম্মান প্রদর্শনজনক অনুষ্ঠান।

বিশ্বের সর্বত্র মায়ের এবং মাতৃত্বের অনুষ্ঠান উদযাপন করতে দেখা যায়। এগুলোর অনেকই প্রাচীন উৎসবের সামান্য প্রামাণিক সাক্ষ্য, যেমন, সিবেল গ্রিক ধর্মানুষ্ঠান, হিলারিয়ার রোমান উৎসব যা গ্রিকের সিবেল থেকে আসে, অথবা সিবেল এবং হিলারিয়া থেকে আসা খ্রিস্টান মাদারিং সানডে অনুষ্ঠান উদযাপন।

১৯১২ সালে আনা জার্ভিস স্থাপন করেন মাদার`স ডে ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন (আন্তর্জাতিক মা দিবস সমিতি) এবং ‘মে মাসের দ্বিতীয় রবিবার’আর ‘মা দিবস’এইসব শব্দবন্ধের বহুল প্রচার করেন।





মাতা ও মাতৃভূমি সর্বশেষ খবর

মাতা ও মাতৃভূমি এর সকল খবর