Dhaka, Saturday, 15 August 2020

আত্মজীবনী: “অপরাজিত জীবন” - ড. যশোদা জীবন দেব নাথ, সিআইপি : পর্ব-৪০

2020-07-05 20:03:11
আত্মজীবনী: “অপরাজিত জীবন” - ড. যশোদা জীবন দেব নাথ, সিআইপি : পর্ব-৪০

সুখবর প্রতিবেদক: ড. যশোদা জীবন দেব নাথ, সিআইপি, ব্যক্তি জীবনে একজন সফল মানুষ, সফল ব্যবসায়ী। জীবনটা শুরু হয়েছিল অনেক কষ্টে। শৈশবেই দেখেছিলেন জীবনের কঠিন রূপ। একবেলা খাবারের জন্যে কত কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে। লেখাপড়াটা হয় কী হয় না, এমন অনিশ্চয়তার মাঝেও জীবনের কাছে হার মানেননি তিনি। স্রোতের প্রতিকূলে বেয়ে নিয়েছেন জীবন নামের নৌকাটিকে। পরবর্তীতে দেশে-বিদেশে নামী-দামী ডিগ্রি নিয়েছেন। বর্তমানে তিনি বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালক, টেকনোমিডিয়া লিঃ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টের, রাষ্ট্রায়ত্ত শ্যামপুর সুগার মিল লিঃ এর অডিট কমিটির চেয়ারম্যান, পে ইউনিয়ন বাংলাদেশ লিঃ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টরসহ জড়িয়ে আছেন অনেক ব্যবসায়ী ও সামাজিক প্রতিষ্ঠান এবং সংগঠনের সাথে। আত্মজীবনীতে তিনি অকপটে তুলে ধরেছেন তাঁর জীবনের কঠিন সেই দিনগুলির কথা।

ড. যশোদা জীবন দেব নাথ, সিআইপি’র আত্মজীবনী “অপরাজিত জীবন”ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হচ্ছে ‘সুখবরডটকম’ -এ। প্রতিদিন আপডেট হচ্ছে এক পর্ব করে।

অপরাজিত জীবন

ড. যশোদা জীবন দেব নাথ

পর্ব-৪০

অসহায় মানুষের দিকে হাত বাড়িয়ে দিয়েছে ফরিদপুরের "ড. যশোদা জীবন দেব নাথ ফ্যান’স ক্লাব" সদস্যরাও। ইতিমধ্যে আমি শিখে গেছি সত্যিকারের মানবতাবোধ। জীবনে অর্থকরী মানবতা মূল্যবোধের কাছে কিছুই না। জীবন বাজি রেখে যারা করোনা আক্রান্ত মানুষের পাশে কাজ করছে তাদেরকে পাঠালাম ৩০০ এরও অধিক পিপিই। ফ্যান’স ক্লাবের অন্যতম সমন্বয়ক গিয়াসের মাধ্যমে দিলাম শ-দুয়েক গরীব মানুষের খাদ্যদ্রব্য। এই ক্লাবের সদস্যরা ইতিমধ্যেই আমার অন্তরে জায়গা দখল করে ফেলছে। ঢাকাতেও তারা ফেসবুক মিলনমেলায় ভূমিকা রেখেছে চোখে পড়ার মত। আমি কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করি যারা অক্লান্ত পরিশ্রম করে উপহার দিয়েছে ফেসবুক মিলনমেলা। ঐ মিলনমেলাকে সাফল্যমন্ডিত করেছেন যারা উপস্থিত হয়ে, তারা হচ্ছেন- সাঈদ, বাবুল, অখিল পোদ্দার, আবেদ উর রহমান, বিপ্লব চক্রবর্তী, দেলোয়ার খান রনি, এডঃ আলমগীর ভূঁইয়া, সেলিম মিয়া, শেখ তানভীর আহমেদ শিমুল, মহিউদ্দিন ডুপ্লো, এস.আই মাসুদ রানা, শফিকুর রহমান মিঠু, হাবিবুর রশীদ রিমু, রিপন খাঁন, আরিফিন সজিব, মাহফুজ, মিজানুর রহমান, কৌশিক মজুমদার প্রিন্স, শরিফুল ইসলামসহ অনেকেই, কমলেশ সাহা, রাজিব খান, মৃত্তিকা নাগ, ওয়াহিদ জামান, ত. ম মাসুদ, মঈন আহমেদ, শংকর সাহা, সুমন, শিমুল, সৈকত, কনক, কবির, অসীম সাহা, রায়হান, বাদল, তমা ঘোষ, হৃদয়, রাসেল।

এছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন- লেলিন ও অমিত দাস। সুরঞ্জন ভৌমিক রনি, ফ্লাইং, ভীরাত চন্দ্র দাস, রেজয়ান রনি, রাসু অনুষ্ঠান কার্য সম্পাদনে সহযোগিতা করেছে।

আমি কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করি ওদের যারা আমার ফেসবুক মিলনমেলায় উপস্থিত হয়ে করেছে সাফল্যমন্ডিত। অনেকের নাম আমি ভুলে গেছি যারাও উক্ত অনুষ্ঠানে ওখানে ছিলো।

আজ মহামারি করোনায় স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে মানবতার মূল্যবোধের কথা। বন্ধুরা সবাই স্ব স্ব স্থান থেকে করে যাচ্ছে নীরবে সহযোগিতা। এই সহযোগিতার পেছনে নাই কোনো বৈষয়িক চাওয়া-পাওয়া। এই চাওয়া-পাওয়ার ঊর্ধ্বে গিয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে নিলাম করোনাকালীন বা লকডাউন সময়কালে বিভিন্ন কোম্পানি থেকে আমি যে পারিশ্রমিক পাই তা পুরোটাই দিয়ে দিবো গরীব-দুখী মানুষদেরকে। এর অংশ হিসাবে ফরিদপুরের কোতোয়ালি থানায় পাঠালাম ৫,০০০ কেজি চাউল, সহযোগিতা চাইলাম ফরিদপুরে কর্তব্যরত পুলিশ অফিসারের, তারা যেন সঠিকভাবে পরিবেশন করতে পারেন যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে। আমি ধন্যবাদ দিতে চাই ফরিদপুরের কোতোয়ালি থানাকে।

এদিকে মানুষ অসহায় হয়ে উঠছে, মৃত্যুর হার যেন হুর হুর করে বেড়ে যাচ্ছে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ভেসে আসছে কান্নার রোল, সুদূর আমেরিকাতে বাঙালিদের মৃত্যুর হার যেনো বেড়েই যাচ্ছে, ঘরে বন্দি মানুষ, এলাকার গরীব দুখী মানুষ পাচ্ছে না ঠিকমতো সরকারি অনুদান, তাদেরকে আমি ফোন করে বললাম মোবাইলে বিকাশ একাউন্ট করতে, এইরূপভাবে সহযোগিতা করলাম ২/৩ শো লোকদের। আমারওতো সীমাবদ্ধতা আছে, হায়রে করোনা! পুরো পৃথিবীটাকেই যেন গ্রাস করছে!

দেখতে দেখতে বাংলাদেশে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর হার বাড়তে থাকলো। অর্থনৈতিক অবস্থা যেন দুমড়ে মুচড়ে যাচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করছেন, গার্মেন্টস শিল্পে বড় বিপর্যয়, জানি না ভাগ্যে কী আছে!





ব্যক্তিত্ব ও জীবনী সর্বশেষ খবর

ব্যক্তিত্ব ও জীবনী এর সকল খবর