বৃহঃস্পতিবার, ২৫শে জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১০ই শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুসা আ.-এর হাতের লাঠি কীভাবে সাপ হয়েছিল?

ধর্ম ডেস্ক

🕒 প্রকাশ: ০২:২০ অপরাহ্ন, ২৪শে জুন ২০২৪

#

ছবি : সংগৃহীত

আল্লাহ তায়ালা প্রত্যেক নবীকে কিছু মুজিজা দিয়েছেন। যখন নবীর উম্মতেরা তাঁর ওপর অর্পিত নবুওয়তে বিশ্বাস স্থাপন না করে তাঁকে মিথ্যা প্রতিপন্ন করেছিলো তখন নবীগণ আল্লাহর পক্ষ থেকে প্রাপ্ত মুজিজা দেখিয়ে তাদের মহান রবের কুদরত বোঝানোর চেষ্টা করেছেন। এতে কেউ হেদায়েত লাভ করে সফল হয়েছেন কেউ বা এসব মুজিজাকে জাদু বলে উপহাস করেছে, নরকের কীটে পরিণত হয়েছে।

আল্লাহ তায়ালা নবী মুসা আ.-কে নয়টি মুজিজা দিয়েছিলেন। এর মধ্যে অন্যতম একটি হলো, তার ব্যবহৃত লাঠি মাটিতে নিক্ষেপ করা মাত্র অজগর সাপের মতো রূপ ধারণ করতো। এরপর তিনি তা হাত দিয়ে ধরলে আবার আগের মতো লাঠিতে পরিণত হয়ে যেতো। 

এ বিষয়ে পবিত্র কোরআনে আল্লাহ তায়ালা বলেছেন—

قَالَ اَلۡقِهَا یٰمُوۡسٰی فَاَلۡقٰهَا فَاِذَا هِیَ حَیَّۃٌ تَسۡعٰی قَالَ خُذۡهَا وَ لَا تَخَفۡ ٝ سَنُعِیۡدُهَا سِیۡرَتَهَا الۡاُوۡلٰی 

মহান আল্লাহ বলেন, ‘হে মুসা! তুমি তা (লাঠি) নিক্ষেপ করো।  অতঃপর সে (মুসা আ.) তা নিক্ষেপ করল। সঙ্গে সঙ্গে তা সাপ হয়ে ছুটতে লাগল। তিনি (আল্লাহ) বলেন, তুমি তা ধরো—ভয় কোরো না; আমি এটাকে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে দেব। ’ (সূরা ত্বহা, আয়াত : ১৯-২১)

আল্লাহ তায়ালা কুদরতিভাবে এই লাঠির ভেতর ঐশ্বরিক ক্ষমতা দান করেছিলেন। তিনি মুসা (আ.)-কে এই লাঠি জমিনে নিক্ষেপ করতে বলেছিলেন। নিক্ষেপ করার সঙ্গে সঙ্গে লাঠিটি সাপে পরিণত হয়। হঠাৎ একটি বৃহৎ সাপ মুসা (আ.)-এর সামনে নড়াচড়া করতে লাগল।

আরো পড়ুন : সাপ নিধন নিয়ে হাদিসে যা বলা হয়েছে

দ্রুত নড়াচড়া ও গা হেলানোর কারণে প্রথমে সাপটিকে ছোট আকারের দেখাচ্ছিল, কিন্তু পরে দেখা গেল, এটি একটি বৃহৎ সাপ। কিন্তু এই সাপ তাঁকে আক্রমণ করে বসেনি। তবু লাঠির সাপ হয়ে যাওয়া এবং তার নড়াচড়া দেখে মুসা (আ.) ভয় পেয়ে যান। মহান আল্লাহ তাঁকে অভয় দেন। সাপটি কোনো ক্ষতি করবে না—এই মর্মে নিশ্চয়তা দেন।

অতঃপর মহান আল্লাহ মুসা (আ.)-কে সাপটি ধরার নির্দেশ দেন। স্পর্শ করার সঙ্গে সঙ্গে ওই সাপ আগের অবস্থায় ফিরে যায়—লাঠিতে পরিণত হয়ে যায়।

মুসা (আ.)-এর হাতে লাঠি সাপ হয়ে যাওয়া কিছুতেই জাদু ছিল না। এটা ছিল মুসা (আ.)-এর মুজিজা বা অলৌকিক ক্ষমতা। 

মুসা আ.-এর লাঠিটি সাপের রূপ ধারণ করার ঘটনা ঘটেছিল, যখন তিনি ফিরাউনকে আল্লাহর একত্ববাদের প্রতি আহ্বান করলেন, তখন সে কোনো যুক্তিতর্ক না মেনে সরাসরি মুজিজা দেখার দাবি করতে লাগল এবং বলল, বাস্তবিকই যদি তুমি কোনো মুজিজা নিয়ে এসে থাক, তাহলে তা উপস্থাপন কর যদি তুমি সত্যবাদীদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে থাক।

মূসা আলাইহিস সালাম তার দাবি মেনে নিয়ে স্বীয় লাঠিখানা মাটিতে ফেলে দিলেন, আর অমনি তা এক বিরাট অজগরে পরিণত হয়ে গেল। এ ঘটনাটি ফিরাউনের রাজ দরবারে সবার সামনে সংঘটিত হয়েছিল। কিন্তু এই মুজিজা দেখার পরও আল্লাহর ওপর ঈমান আনেনি ফিরাউন। উল্টো এ ঘটনাকে জাদু বলে উপহাস করেছিল।

এস/ আই.কে.জে/

সাপ মুসা আ. হাতের লাঠি

খবরটি শেয়ার করুন