শনিবার, ১৩ই এপ্রিল ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৩০শে চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি ও ঈদ উপলক্ষে ভাড়া মওকুফ করলেন বাড়িওয়ালা

নিউজ ডেস্ক

🕒 প্রকাশ: ০৪:৫৯ অপরাহ্ন, ১লা এপ্রিল ২০২৪

#

ছবি: সংগৃহীত

নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি ও আসন্ন ঈদে ভাড়াটিয়ার অতিরিক্ত খরচের চাপ কমানোর জন্য ১ মাসের বাসাভাড়া সম্পূর্ণ মওকুফ করেছেন এক বাড়িওয়ালা। রাজধানীর মিরপুর এলাকার রুপালি হাউজিংয়ের এক বাড়িওয়ালা এমন অনন্য নজির স্থাপন করলেন।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে এমন একটি পোস্ট।

জানা যায়, রুপালি হাউজিংয়ের ৬১ নম্বর বাড়িতে ভাড়া থাকেন আলিমুর রহমান সুফাল। এই বাড়িওয়ালার এই হাউজিংয়ে দুইটা বাড়ি আছে এবং সবার জন্যই এই উপহার দিয়েছেন।

সোমবার (১লা এপ্রিল) তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে বিষয়টি জানালে মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয় পোস্টটি।

বাড়িওয়ালা থেকে পাঠানো চিঠিটি তার আইডিতে শেয়ার করে লেখেন, আমার বাড়ি ওয়ালার পক্ষ থেকে ঈদ উপহার....আমি আমার ঢাকা শহরের এই ছোট্ট জীবনে কেউ কখনো এমন উপহার পেয়েছেন কিনা জানি না এবং শুনিনি কখনো, আমি অন্তত পাইনি। সম্পদের পাশাপাশি সুন্দর একটা আত্মা থাকা টা ও জরুরি একজন প্রকৃত মানুষ হওয়ার জন্য। আল্লাহ উনাকে নেক হায়াত এবং দুনিয়া ও আখিরাতে উত্তম প্রতিদান দান করুন।

নাজমুল হাসান নামে একজন কমেন্টবক্সে লিখেন, আলহামদুলিল্লাহ। এরকম কখনো শুনি নাই ভাই। ওনার জন্য দোয়া রইল।

মো. মঞ্জুর মুর্শেদ নামে একজন লেখেন, কোথায় এই হাউজিং ? বাসা কি আর খালি আছে?

হিমা রুজারিও নামে একজন মন্তব্য করে বলেন, ‌ঈশ্বর উনার এবং উনার পরিবারের মঙ্গল করুন।ভাইয়া পোস্টটা কি শেয়ার দিতে পারি?কারণ এমন দৃষ্টান্ত সহজে দেখা যায় না।

অন্তু মুজাহিদ নামে একজন পোস্টটি শেয়ার করে তার টাইমলাইনে লেখেন, ‌হে আল্লাহ, রাজধানীর সকল বাড়িওয়ালাকে রাতারাতি নিচের এই বাড়িওয়ালার মতো দারাজ দিলের মালিক বানিয়ে দাও।

আলিমুর রহমানের করা সেই পোস্টের ছবি শেয়ার করে সৈয়দ ইবনে রহমত নামে একজন লিখেছেন, একই দুনিয়ার মানুষ, কত রকম যে হয়! একজন বাড়িওয়ালা তার ভাড়াটিয়াদের ঈদানন্দকে বাড়িয়ে দিতে এক মাসের ভাড়াই না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আবার এই একই শহরের আরেকজন বাড়িওয়ালার খবর জানি, ‍যিনি তার বাসায় ৮ বছর ধরে বসবাস করা ভাড়াটিয়াকে এক মাসের ভাড়া বকেয়া থাকায় এই ঈদের আগে বাসা ছাড়া করেছেন।

এ বিষয়ে আলিমুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, আমি একজন ভাড়াটিয়া হিসেবে আমার আবেগ প্রকাশ করেছি মাত্র।

ওআ/

নিত্যপণ্য ভাড়া

খবরটি শেয়ার করুন