বৃহঃস্পতিবার, ২৫শে জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১০ই শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বুলডোজারে চড়ে বিয়ের আসরে বর!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

🕒 প্রকাশ: ০৪:০৯ অপরাহ্ন, ১১ই জুলাই ২০২৪

#

ভারতের উত্তরপ্রদেশে যোগী আদিত্যনাথ সরকারের ‘বুলডোজার নীতি’ নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। সেখানে অনেকটাই ‘প্রতীক চিহ্নে’ পরিণত হওয়া এই বুলডোজার নিয়েই এবার অভিনব কাণ্ড করে বসলেন এক বর।  

কনেপক্ষের কটাক্ষের জবাব দিতে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের গুণমুগ্ধ যুবক বিয়ে করতে যান বুলডোজারে সওয়ার হয়ে। সেই ঘটনার ভিডিও সামাজিক মাধ্যমেও ভাইরাল হয়েছে, যা নিয়ে একরকম শোরগোল পড়ে গেছে। 

জানা যায়, গোরক্ষপুরের খজনি নগরের বাসিন্দা ওই যুবকের নাম কৃষ্ণ বর্মা। ওই জেলারই খলিলাবাদের প্রমিলা নামে এক নারীর সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয় তার। বিজেপি সমর্থক ওই যুবকের বিয়ের তারিখ ঠিক হওয়ার পর কনেপক্ষের বাড়ির এক ব্যক্তি ওই যুবককে কটাক্ষ করে বলেন,‘সাবধানে আসবেন খলিলাবাদে কিন্তু বিজেপি হেরে গেছে।’ 

কিন্তু বিজেপিকে নিয়ে কন্যাপক্ষের এই কটাক্ষ বুকে গিয়ে বেঁধে যুবকের। এরপরই তিনি সিদ্ধান্ত নেন, এই কটাক্ষের যোগ্য জবাব দেবেন হবু শ্বশুরবাড়ির লোকদের। ‘অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবহৃত’যোগীর অস্ত্র বুলডোজার নিয়েই বিয়ে করতে যাবেন তিনি। 

সেই অনুযায়ী, বিয়ের দিন গাড়ি ছেড়ে বুলডোজার ভাড়া করেন ওই যুবক। ফুল দিয়ে সাজানো হয়। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে সেই বুলডোজারে সওয়ার হয়ে খলিলাবাদে শ্বশুরবাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেন কৃষ্ণ। সঙ্গে বাজতে থাকে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে নিয়ে জনপ্রিয় গান, ‘যব চ্যাম্প কে বাবা চলেলা বাবা কা বুলডোজার…’। 

উল্লেখ্য, অপরাধীদের শাস্তির পাশাপাশি আর্থিকভাবে কড়া জবাব দিতে উত্তরপ্রদেশে বুলডোজার নীতি নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। এর ফলে অপরাধের ঘটনায় কারও নাম জড়ালেই বুলডোজার দিয়ে ভেঙে গুড়িয়ে দেয়া হয় তার বাড়ি। উত্তরপ্রদেশের এই নীতি অল্প দিনেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠে দেশের বাকি বিজেপি শাসিত রাজ্যেও। 

যদিও এই বুলডোজার নীতির জেরে আদালতের তোপের মুখেও পড়েছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। তবে বুলডোজার হামলা কিছুটা কমলেও, পুরোপুরি বন্ধ হয়নি। বিরোধীদের অভিযোগ, ন্যায়-নীতিকে জলাঞ্জলি দিয়ে যোগী সরকারের প্রতিহিংসার অস্ত্র হয়ে উঠেছে এই বুলডোজার। 

এইচআ/ 

বিয়ে বুলডোজার

খবরটি শেয়ার করুন