শনিবার, ১৩ই এপ্রিল ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৩০শে চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভারতে বন্ধ হচ্ছে পেট্রোল ও ডিজেল চালিত যানবাহন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

🕒 প্রকাশ: ১১:৫৬ পূর্বাহ্ন, ২রা এপ্রিল ২০২৪

#

ছবি: সংগৃহীত

পরিবেশ দূষণ প্রতিরোধ ও সবুজ অর্থনীতি গড়ার লক্ষ্যে পেট্রোল ও ডিজেল-চালিত গাড়ি চলাচল বন্ধ হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ভারতের কেন্দ্রীয় সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রী। এসব গাড়ির বদলে চলবে গ্যাস ও ইলেকট্রিক গাড়ি। শিগগিরই নতুন এই নিয়ম চালু হচ্ছে। 

ভারতের সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রী নীতিন গডকরি জানান, দেশটিতে ৩৪ কোটির বেশি পেট্র্রোল-ডিজেল গাড়ি রয়েছে। কিন্তু, আগামী দিনে সেই সংখ্যা যে ব্যাপক পরিমাণে কমতে চলেছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কারণ হাইব্রিড গাড়িতে জিএসটি কমানোর কথাও জানিয়েছেন তিনি। 

সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রী জানিয়েছেন, জ্বালানি আমদানির জন্য ১৬ লাখ কোটি রুপি খরচ করে সরকার। এই টাকা কৃষকদের জীবনযাত্রা উন্নয়ন, গ্রামগুলোকে সমৃদ্ধ করা এবং যুবক-যুবতীদের কর্মসংস্থানে ব্যবহার করা যেতে পারে। যদিও এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের কোনো দিনক্ষণ ঠিক করেনি কেন্দ্রীয় সরকার। 

আরো পড়ুন: অরুণাচলের আরও ৩০ চাইনিজ নাম প্রকাশ

হাইব্রিড গাড়ির উপর জিএসটি কমিয়ে ৫ শতাংশ করার পরিকল্পনা ভারত সরকারের। হাইব্রিড গাড়ির পাশাপাশি ফ্লেক্স-ফুয়েল ইঞ্জিন চালিত গাড়িতে জিএসটি কমিয়ে ১২ শতাংশ করতে পারে দেশটির সরকার।

ভারতের পরিবহন মন্ত্রী দাবি করেন, জৈব জ্বালানির উপর জোর দিয়ে জ্বালানি আমদানি কমাতে পারে সরকার। কেন্দ্রের এই ভাবনাকে স্বাগত জানিয়েছেন পরিবেশবিদরা। কিন্তু, বিদ্যুৎ উৎপাদনে জীবাশ্ম জ্বালানির ব্যবহার বাড়তে পারে সেই আশঙ্কা করছেন তারা।

সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রী আশাবাদী, যে হারে বর্তমানে ইলেকট্রিক গাড়ি বাজারে আসতে শুরু করেছে তাতে আগামী দিনে বিকল্প জ্বালানি এবং জৈব জ্বালানির স্বপ্ন পূরণ হবে। তিনি আরও জানান, বাজাজ, টিভিএস, হিরো মটোকর্পের মতো সংস্থার ইতিমধ্যে ফ্লেক্স-ফুয়েল ইঞ্জিন চালিত মোটরসাইকেল এবং রিকশা বানানো শুরু করে দিয়েছে।

সূত্র: এনডিটিভি 

এইচআ/ আই.কে.জে/ 

নিষিদ্ধ ডিজেল যানবাহন

খবরটি শেয়ার করুন