শনিবার, ১৩ই এপ্রিল ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৩০শে চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কেমন হবে ঈদের মেকআপ

লাইফস্টাইল ডেস্ক

🕒 প্রকাশ: ০১:৫৩ অপরাহ্ন, ২রা এপ্রিল ২০২৪

#

ছবি : সংগৃহীত

'ও মন রমজানের ওই রোজার শেষে এলো খুশির ঈদ।' আর মাত্র কয়েকদিন পরই এ গান গাওয়ার সুযোগ হবে। ঈদে সবারই চাওয়া থাকে, নিজেকে একটু গুছিয়ে উপস্থাপনের। 

কিংবদন্তী জাপানি মেকআপ আর্টিস্ট শু ইউমুরার মতে, মেকআপ বিষয়টা আমাদের নিজেদেরকে যেন ছাড়িয়ে না যায়, বরং আমাদের সঙ্গেই হোক তার এগিয়ে যাওয়া। আর এই চেতনাটাই মাথায় রেখে অনেকে এখন বেছে নেন সূক্ষ্ম মেকআপের কারুকাজ, যাতে করে আমাদের ভেতরকার জৌলুসটা দারুণভাবে বেরিয়ে আসে। 

কেনাকাটা, পোশাক বাছাই আর সেইসঙ্গে নিত্যনতুন ট্রেন্ডের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলা বছরের এই সময়টায় ফ্যাশন জগতের আনন্দ ঘিরে থাকে এই সবকিছুকেই। একবার ঠিকঠাক পোশাকটা বেছে নেওয়া হয়ে গেলেই এর পরবর্তী ধাপ নিঃসন্দেহে সাজগোজ অর্থাৎ মেকআপ। একটা সময় হয়তো এমন ছিল যখন মুখে কিছুটা পাউডার ঘষে নিয়ে ঠোঁটে তড়িঘড়ি করে লিপস্টিক দিলেই মনে হতো রেডি! কিন্তু এখন তা মোটেও নয়, এখন সাজগোজটা অনেকটা শিল্পের জায়গা করে নিয়েছে।

২০২৪ সালে মেকআপের দিকে রাখা হচ্ছে নতুন এক দৃষ্টিভঙ্গি। এ বছরে ত্বকের সুস্থতাই থাকবে সর্বাগ্রে। পরিষ্কার, সতেজ ত্বকের ঝলমলে ভাবটাই কেড়ে নেবে সবটা নজর। অবশ্য এর জন্য প্রথমেই প্রয়োজন রূপচর্চার, ত্বকের যত্নের। ত্বক পরিষ্কার করে রাখা, টোনিং, ময়েশ্চারাইজিং ইত্যাদি কার্যকলাপ যাতে নিয়মিত রুটিনে থাকে– সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। সেইসঙ্গে ভুললে চলবে না সানস্ক্রিনটাও।

উচ্চমানের এসপিএফ আছে এমন সানস্ক্রিন বেছে নিন, নইলে রোদে পুড়ে ত্বক হয়ে যাবে কালচে। ত্বক পুরোপুরি সুস্থ থাকলে খুব কম মেকআপেই নিজেকে আয়নার সামনে দেখলে চমকে যাবেন, এতে কোনো সন্দেহ নেই।

আরো পড়ুন : কর্মব্যস্ত নারীর জন্য সহজ বিউটি টিপস!

এরপর প্রয়োজন হবে ফাউন্ডেশনের হালকা একটি স্তর, যাতে ত্বক পুরোপুরি ঢেকে না যায়। আর এভাবেই তো আমরা নিজের ত্বক নিয়ে আত্মবিশ্বাসী হতে পারি। চোখে পড়ুক না মুখের কয়েকটি দাগ– কী এসে যায়? সৌন্দর্য তাতে একটুও কম হবে না। ফাউন্ডেশনের মোটা, পুরু স্তরে ঢাকা পড়ে যাওয়া আসল মুখের দিন শেষ। এখন সবটাই হবে নিজেকে নিয়ে, একটুখানি সাজের স্পর্শে নিজেকেই উদযাপনের সাজ।

একটুখানি ময়েশ্চারাইজার, বিবি ক্রিম কিংবা সম্প্রতি বাজারে আসা ভালো কোনো ফেস টিন্টও চলবে। ফরেস্ট এসেনশিয়ালস সিল্ক টিন্ট দেবে ছিমছাম একটা ফিনিশিং, যা কি না গ্রীষ্মকালের জন্য মানানসই। যদি আরেকটু কভারেজ দরকার হয়, তাহলে সঙ্গে ব্যবহার করতে পারেন লাইটওয়েট কোনো ক্রিমি টেক্সচারের কনসিলার।

মুখের দাগ ঢাকতে 'স্পট কনসিলিং' দুর্দান্ত একটি নতুন পদ্ধতি, যাতে ত্বক পুরোপুরি না ঢেকেও কনসিল করা যায়। এ ছাড়া কালার কারেক্ট করে এমন একটি সিসি ক্রিমও ব্যবহার করা যায়। হালকা মেখে নিলে চেহারা যেন ঈদের চাঁদের মতোই আলো ছড়াবে।

এর পর আসবে হাইলাইটার। হাইলাইটারের এখনকার প্রজন্মটা একটু চিকচিকে ভাব আনে, যাতে করে মুখের উজ্জ্বলতা আরও বেড়ে যায়। শার্লোট টিলবারি, ইউকে– এই ব্র্যান্ডটির হাইলাইটার বর্তমানে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছে। তাই তারকাদের মতো ঝকঝকে সাজ পেতে সাজের পর মুখে ছোঁয়াতে পারেন এই হাইলাইটারটি।

এ বছরে গালের লালিমায় ব্লাশের গোলাপি ধাঁচের শেডগুলো থাকবে তুঙ্গে। তাই ডাস্টি পিংক, পিচ এই রঙের শেড বেছে নিতে পারেন।

গত বছরের শেষ অর্ধাংশে লাতে মেকআপ ছিল অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি ট্রেন্ড এবং এখনও পর্যন্ত এর আবেদন বহাল তবিয়তে বজায় রয়েছে। তাই চোখের সাজে ক্যারামেল, মোকা, ফন এবং কফি শেডগুলো ঈদের সাজে যোগ করবে ভিন্ন মাত্রা। সেইসঙ্গে চোখের আশপাশে একটুখানি কন্ট্যুরিং করে নেবেন। এ ছাড়া ঈদের সন্ধ্যার জমকালো সাজে চোখের কোণে থাকা একটুখানি শ্যাম্পেন শিমার যেন যোগ করে দেবে এক চিমটি নক্ষত্রচূর্ণের সৌন্দর্য।

ফ্লাটারি ল্যাশেস এবং উইংড আইলাইনার দারুণভাবে মানিয়ে যাবে। হেভি আই মেকআপের সঙ্গে বাঁকানো-দীর্ঘ আইলাইনারের নিখুঁত কাজে সাজও হবে আরও নিখুঁত। রোজ, ব্লাশ এবং ডাস্টি পিংক শেড ঠোঁটের জন্য হবে সেরা পছন্দ। সেইসঙ্গে মিউটেড আর নুড টোনগুলো তো রয়েছেই। ঠোঁট আরও বৈশিষ্ট্যপূর্ণ করে তুলতে ব্যবহার করতে পারেন লিপ লাইনারও। তারপর আঁকা ঠোঁটের ক্যানভাসে জুড়ে নিন পছন্দসই রঙের লিপস্টিক।

এস/ আই.কে.জে/ 

ঈদ মেকআপ

খবরটি শেয়ার করুন