সোমবার, ২৪শে জুন ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১০ই আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এক মাসে ১৬ বার বেড়েছে-কমেছে স্বর্ণের দাম

নিউজ ডেস্ক

🕒 প্রকাশ: ০৭:৪৯ অপরাহ্ন, ১৯শে মে ২০২৪

#

ছবি : সংগৃহীত

পুরো এপ্রিলজুড়ে স্বর্ণের বাজার ছিল টালমাটাল। একমাসে দাম বাড়া-কমার নজিরও গড়েছিল মাসটি। যা দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। সেই ধারাবাহিকতাই বজায় রেখেছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস)।

সংগঠনটির দেওয়া বিজ্ঞপ্তি মতে—সবশেষ শনিবার (১৮ই মে) ভরিতে ১ হাজার ১৭৮ টাকা বাড়িয়ে ২২ ক্যারেটের একভরি স্বর্ণের দাম ১ লাখ ১৮ হাজার ৪৬০ টাকা নির্ধারণ করেছে বাজুস। এ নিয়ে ৩১ দিনের ব্যবধানে দেশের বাজারে ১৬ বার স্বর্ণের দাম সমন্বয় করেছে বাজুস। যার মধ্যে ৯ বার দাম কমানো হয়েছে, আর বাড়ানো হয়েছে ৭ বার। এর মধ্যে সবশেষ পাঁচ দফায় স্বর্ণের দাম বাড়ানো হয়েছে মোট ৯ হাজার ২৯৭ টাকা।

বাজুসের বিজ্ঞপ্তি বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত এক মাসে স্বর্ণের বাজারে উত্থান-পতন শুরু হয়েছিল মূল্যবৃদ্ধির প্রবণতা দিয়ে। গেল ১৮ই এপ্রিল থেকে করা এই হিসাবে দেখা গেছে— গত ১৮ ই এপ্রিল ভরিতে ২ হাজার ৬৫ টাকা বাড়িয়ে একভরি ২২ ক্যারেটের স্বর্ণের দাম নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ১৯ হাজার ৬৩৮ টাকা। যা এখন পর্যন্ত দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। সে সময় ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ১৪ হাজার ২০২ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯৭ হাজার ৮৮৪ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছিল। তবে সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণের দাম প্রতি ভরিতে ১ হাজার ৩৮৯ টাকা কমিয়ে নির্ধারণ করা হয়েছিল ৭৮ হাজার ৮০১ টাকা।

এরপর গত ২০শে এপ্রিল স্বর্ণের দাম ভরিতে ৮৪০ টাকা কমানোর সিদ্ধান্ত নেয় বাজুস। স্থানীয় বাজারে ১ ভরি ২২ ক্যারেট স্বর্ণের দাম নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ১৮ হাজার ৭৯৮ টাকা। সে সময় ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ১৩ হাজার ৩৯৭ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯৭ হাজার ১৯৬ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৭৮ হাজার ২৪২ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

আরো পড়ুন : জার্মানিতে কর্মী নেবে, বাংলাদেশিদের জন্য সুযোগ

২১শে এপ্রিল স্থানীয় বাজারে ফের স্বর্ণের দাম বাড়ায় বাজুস। সেদিন ভরিতে ৬৩০ টাকা বাড়িয়ে ২২ ক্যারেটের একভরি স্বর্ণের দাম ১ লাখ ১৯ হাজার ৪২৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়। ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ১৪ হাজার ৪ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯৭ হাজার ৭০৯ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৭৮ হাজার ৬৬২ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

মাসের শেষ আট দিনে, অর্থাৎ ২৩শে এপ্রিল থেকে টানা ৭ দফায় কমানো হয় স্বর্ণের দাম। সে বার ভরিতে ৩ হাজার ১৩৮ টাকা কমিয়ে ২২ ক্যারেটের একভরি স্বর্ণের দাম ১ লাখ ১৬ হাজার ২৯০ টাকা নির্ধারণ করে বাজুস। এছাড়া ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ১০ হাজার ৯৯৫ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯৫ হাজার ১৪৩ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৭৬ হাজার ৫৮৬ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

 ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে গত ২৪শে এপ্রিল ২২ ক্যারেটের একভরি স্বর্ণের দাম ২ হাজার ১০০ টাকা কমানোর ঘোষণা দেয় সংগঠনটি। দাম নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ১৪ হাজার ১৯০ টাকা। সে সময় ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ৯ হাজার টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯৩ হাজার ৪২৯ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৭৫ হাজার ২০৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

 গত ২৫শে এপ্রিল ফের ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে ভরিতে ৬৩০ টাকা কমিয়ে ২২ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম ১ লাখ ১৩ হাজার ৫৬০ টাকা নির্ধারণ করে বাজুস। এছাড়া ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ৮ হাজার ৪০৫ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯২ হাজার ৯১৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

একদিন বিরতি দিয়ে ২৭শে এপ্রিল ২২ ক্যারেটের স্বর্ণের দাম ভরিতে ৬২৯ টাকা কমিয়ে ১ লাখ ১২ হাজার ৯৩১ টাকা নির্ধারণ করে বাজুস। তবে ২ হাজার ৪১ টাকা বাড়িয়ে সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরির দাম নির্ধারণ করা হয় ৭৬ হাজার ৮৪২ টাকা। এছাড়া দাম কমিয়ে ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ৭ হাজার ৭৯৯ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরির দাম নির্ধারণ করা হয় ৯২ হাজার ৪০২ টাকা।

এরপর টানা দিন অর্থাৎ ২৮-৩০শে এপ্রিল স্বর্ণের দাম কমায় বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন। ২৮শে এপ্রিল ২২ ক্যারেটের স্বর্ণের দাম ভরিতে ৩১৫ টাকা কমিয়ে নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ১২ হাজার ৬১৬ টাকা। এছাড়া ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ৭ হাজার ৪৯৫ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯২ হাজার ১৪৬ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরির দাম নির্ধারণ করা হয় ৭৬ হাজার ৬৩২ টাকা।

 ২৯শে এপ্রিল ২২ ক্যারেটের স্বর্ণের দাম ভরিতে ১ হাজার ১৫৫ টাকা কমিয়ে নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ১১ হাজার ৪৬১ টাকা। এছাড়া ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ৬ হাজার ৩৯৯ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯১ হাজার ২০১ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম নির্ধারণ করা হয় ৭৫ হাজার ৮৩৯ টাকা।

গত ৩০শে এপ্রিল ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে ভরিতে ৪২০ টাকা কমিয়ে ২২ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম ১ লাখ ১১ হাজার ৪১ টাকা নির্ধারণ করেছে বাজুস। এছাড়া ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ৬ হাজার ২ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯০ হাজার ৮৬৩ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৭৫ হাজার ৫৫৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

আরো পড়ুন : অসম্ভবকে সম্ভব করেছেন তিন নারী বাস কন্ডাক্টর

দরপতনের এই প্রবণতা শেষ হয় গত ২রা মে। এদিন ভরিতে ১ হাজার ৮৭৮ টাকা কমিয়ে একভরি ২২ ক্যারেটের স্বর্ণের দাম নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ৯ হাজার ১৬৩ টাকা। এছাড়া ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ৪ হাজার ১৯৫ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৮৯ হাজার ৩১১ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৭৪ হাজার ২৭৬ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

তবে এরপরই দেশের স্বর্ণের বাজারে ঘটে ছন্দপতন। টানা ৫ দফা বাড়ে দাম। শুরুটা হয় গত ৪ই মে ২২ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম ১ হাজার ৫০ বাড়ানোর মধ্য দিয়ে। এদিন স্বর্ণের দাম গিয়ে ঠেকে ১ লাখ ১০ হাজার ২১৩ টাকায়। এছাড়া ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ৫ হাজার ১৯৮ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯০ হাজার ১৭৪ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৭৪ হাজার ৯৮৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

এরপর ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে গত ৫ই মে আবার দেশের বাজারে বাড়ানো হয় স্বর্ণের দাম। এদিন ভরিতে ৭৩৫ টাকা বাড়িয়ে ২২ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম ১ লাখ ১০ হাজার ৯৪৮ টাকা নির্ধারণ করে বাজুস। এছাড়া ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ৫ হাজার ৮৯৭ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯০ হাজার ৭৬৯ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৭৫ হাজার ৪৮৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

একদিন বিরতি দিয়ে গত ৭ই মে আবার দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম বাড়ায় বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন। এবার ভরিতে ৪ হাজার ৫০২ টাকা বাড়িয়ে ২২ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম ১ লাখ ১৫ হাজার ৪৫০ টাকা নির্ধারণ হয়। এছাড়া ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ১০ হাজার ২০১ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯৪ হাজার ৪৫৫ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৭৮ হাজার ৯০ টাকা নির্ধারণ করে সংগঠনটি।

গত ১১ই মে ভরিতে ১ হাজার ৮৩২ টাকা বাড়িয়ে ২২ ক্যারেটের একভরি স্বর্ণের দাম ১ লাখ ১৭ হাজার ২৮২ টাকা নির্ধারণ করা হয়। এছাড়া ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ১১ হাজার ৯৫১ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯৫ হাজার ৯৬০ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম নির্ধারণ করা হয় ৭৯ হাজার ৩৩৯ টাকা।

আর ১৮ই মে ভরিতে ১ হাজার ১৭৮ টাকা বাড়িয়ে ২২ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম ১ লাখ ১৮ হাজার ৪৬০ টাকা নির্ধারণ করে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন। এছাড়া ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি ১ লাখ ১৩ হাজার ৮২ টাকা, ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি ৯৬ হাজার ৯১৬ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৮০ হাজার ১৩১ টাকা নির্ধারণ করা হয়। যা বর্তমানে দেশের বাজারে স্বর্ণের সমন্বয়কৃত সবশেষ দাম।

এস/ আই.কে.জে/

স্বর্ণের দাম

খবরটি শেয়ার করুন